ডায়াবেটিক রোগীর চিনি শুন্য হওয়া

ডায়াবেটিক রোগী রক্তে সুগার নিয়ন্ত্রন করার জন্য যে ঔষধ বা ইনসুলিন ব্যবহার করে তার মাত্রা যদি খুব বেশী হয়ে যায় অথবা রোগী যদি সময় মতো খাবার না খায়, কিংবা বমি বা পাতলা পায়খানা করে তাহলে হঠাৎ করে রক্তে গ্লুকোজ এর মাত্রা খুব কমে যেতে পারে।

hypo_thumb_medium400_

যখন এর মাত্রা খুবই কমে যায় তখন রোগী অসুস্থ হয়ে অজ্ঞান পর্যন্ত হয়ে যেতে পারে। কাজেই এই ব্যপারে শুরু থেকেই সকল রোগীর খুব সতর্ক থাকতে হবে এবং জেনে নিতে হবে এমন অবস্থা হলে কি করতে হবে।

অসুধ বা ইনসুলিন ব্যবহার করার পরে রোগী যদি অসুস্থ বোধ করে, বুক ধড়ফড় করে, শরীর থরথর করে কাপতে থাকে, প্রচুর ঘাম দেয়, ক্ষুধার্ত লাগে, হঠাৎ করে দাঁড়ানো বা বসা অবস্থা থেকে পড়ে যায় কিংবা অজ্ঞান হয়ে যায় ধরে নিতে হবে এটা রক্তে আকস্মিক সুগার কমে যাওয়ার কারণে হয়েছে। এমনটি হলে সাথে সাথে রোগীকে এক গ্লাস পানিতে ৭/৮ চামচ চিনি/গ্লুকোজ বা গুড় মিশিয়ে খাইয়ে দিতে হবে। চিনি/গুড় না থাকলে মিষ্টি জাতীয় যে কোনো খাবার দ্রুত খাইয়ে দিতে হবে এবং এই ফাঁকে চিনির ব্যবস্থা করতে হবে।

রোগী যদি পুরোপুরি অজ্ঞান হয়ে যায় তাকে খুব দ্রুত হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নিয়ে যেতে হবে এবং শিরায় স্যালাইনের মাধ্যমে গ্লুকোজ ইঞ্জেকশন দিতে হবে। এমন ঘটনা ঘটে রোগীর যেনো বিরাট কোনো ক্ষতি না হয়ে যায় এজন্য সবসময় ডায়াবেটিক রোগীর নাগালের মধ্যে কিছু চিনি বা গ্লুকোজ রাখতে হবে। রোগী অশিক্ষিত হলে বা কম বুঝে থাকলে তাকে খুব ভালো করে বুঝিয়ে দিতে হবে যে অসুধ বা ইনসুলিন নেবার পরে এমন খারাপ লাগলে সাথে সাথে চিনি/গুড় খেতে হবে।

সূত্রঃ স্বাস্থ্য বাংলা

লিখেছেন ডাঃ ওসমাণ গনি

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s