মোবাইলেই শুরু হয় প্রেম, ঘনিষ্টতা, অতঃপর ভুয়া বিয়ে!

মুন্সীগঞ্জ জেলা সদরের ইদ্রাপুর গ্রামের বাসিন্দা মো. খলিলুর রহমানের মেয়ে তসলিমা আক্তার তানিয়া। মোবাইল ফোনে পরিচয় হয় ঢাকার আলী ইমাম মজুমদারের ছেলে মাহবুব ইমাম মজুমদারের সঙ্গে। এরপর মোবাইলেই শুরু হয় প্রেম, ঘনিষ্টতা, দেখাশুনা ও জানাশোনা। উভয়ের সম্পর্ককে আরো স্থায়িত্ব দিতে ভুয়া বিয়ের আশ্রয় নিতে গিয়ে এখন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কাঠগড়ায় তানিয়া আক্তার।

মোবাইলেই শুরু হয় প্রেম, ঘনিষ্টতা,

সম্প্রতি ভুয়া কাবিননামা তৈরি করে প্রতারণার অভিযোগে তানিয়া ও ভূয়া কাবিন নামা প্রস্তুতকারী কাজীকে আসামি করে রাজধানীর কোতয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন দুদকের উপ-পরিচালক এসএম রফিকুল ইসলাম। সেই মামলার তদন্তে প্রধান আসামি হিসেবে তানিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছে দুদক। আগামী রোববার (২০ মার্চ) সকাল ১০টায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে তানিয়াকে হাজির হতে বলা হয়েছে।

ওই মামলার এজহার সূত্রে জানা যায়, মাহবুব ইমাম মজুমদারের সঙ্গে বেশ কিছুদিন আগে তানিয়ার ফোনালাপে পরিচয় হয় এবং পরে উভয়ের সাক্ষাত হয়। পরিচয় ও ঘনিষ্টতার এক পর্যায়ে মেয়েটি তাকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে প্রথমে মাহবুব বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখেননি। এরপর মেয়েটি তাদের এ সম্পর্কের কথা ও মাহবুবের মোবাইল নম্বর তার পরিবারকে দেখালেও তানিয়ার পরিবার বিয়ের ব্যাপারে কোনো ব্যবস্থা নেননি। এক পর্যায়ে তানিয়া নিজে গত বছরের ২৩ মে ভুয়া কাবিননামা তৈরি করে সেখানে মাহবুব আলম মজুমদারের নাম, ভোটার আইডি কার্ডের ছবি, স্বাক্ষর ও টিপসই সংযুক্ত করেন।

এ ঘটনায় প্রেমিক মাহবুব ইমাম মজুমদার প্রতারণামূলকভাবে বিয়ের ভুয়া নিকাহনামা সৃষ্টি করা হয়েছে- উল্লেখ করে রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) ও দুদকে অভিযোগপত্র দায়ের করেন। এর পর বিষয়টি নিয়ে দুদকের অনুসন্ধানে দেখা যায়, নিকাহনামায় মাহবু্বের স্বাক্ষর ও টিপসই জাল করা হয়েছে। আর যেসব সাক্ষীদের নাম-ঠিকানা নিকাহনামায় উল্লেখ করা হয়েছে- তারা মাহবুব ইমাম মজুমদারের পূর্বপরিচিত নয় বলেও প্রমাণিত হয়েছে। প্রসঙ্গত, তানিয়া ঢাকা কোতয়ালী থানার ১৪নং কোর্ট হাউজ স্ট্রিট কাজী (ম্যারেজ রেজিস্ট্রার) মো. সাদেক উল্লাহ ভূইয়ার সাহায্যে প্রতারণার উদ্দেশ্যে এই ভূয়া কাবিননামা তৈরি করেছেন বলে দুদকের কাছে প্রতীয়মান হয়। আর তাই তানিয়া এবং ওই কাজীকে আসামি করে দণ্ডবিধির ৪২০/৪৬৭/৪৬৮/৪৭১/১০৯ ধারায় রাজধানীর কোতয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলার তদন্তে প্রধান আসামি তানিয়াকে আগামী ২০ মার্চ রোববার সকাল ১০টায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হয়েছে। দুদকের উপ-পরিচালক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসএম রফিকুল ইসলাম তানিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ করবেন বলে সূত্র জানিয়েছে। তথ্যঃ বিডি খবর

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

w

Connecting to %s