The National Weather Service decides to stop yelling at us — Grist

He National Weather Service will stop issuing forecasts in all-caps beginning on May 11. They’ve given us 30 days’ notice to prepare, AND AS YOU CAN SEE, WE ARE FREAKING OUT. All this time, we thought that the nation’s top meteorologists were just a bunch of neurotics. We assumed when they told everyone in Boston at 7 a.m. this…

via The National Weather Service decides to stop yelling at us — Grist

জেনি নিন লেবু চা এর উপকারীতা

অনেকেই আমরা লেবু চা পান করে থাকি। কিন্তু এই লেবু চায়েই আছে অনেক উপকারী দিক, যা আমরা অনেকেই জানি না। তবে চলুন জেনে নেই এর উপকারী দিকগুলো। লেবু চা দাঁতের ব্যথা উপশমে সাহায্য করে। এ ছাড়া মাড়ি থেকে রক্ত পড়া বন্ধ করতে লেবু চা খুব কার্যকর। আর দাঁতে প্লাক জমারকারণে যে দাগ পড়ে, তা সরাতেও লেবু চা সাহায্য করে। রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে লেবু চা।
জেনি নিন লেবু চা এর উপকারীতা
এটি শরীরের উপকারী কোলেস্টেরলের মাত্রা যেমন বাড়িয়ে দেয়,  তেমনি ক্ষতিকর কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখে। লেবু সাইট্রাস পরিবারভুক্ত। এতে আছে উচ্চমাত্রার ভিটামিন সি আর পটাশিয়াম। ভিটামিন সি আর পটাশিয়াম মিলে শরীরের উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। লেবুর পটাশিয়াম হৃৎপিণ্ডের কর্মক্ষমতাও বাড়ায়। লেবুর রসে আছে ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধী এক অনন্য বৈশিষ্ট্য। যার ফলে গলা ব্যথা, মুখের ঘা এবং টনসিলের সংক্রমণ রোধে সাহায্য করে লেবু চা। ত্বকের ক্ষত পূরণে লেবু চা বেশ কার্যকর। লেবু চা পান করলে ত্বকে কোলাজেনের মাত্রা বেড়ে যায়। ফলে ত্বক আরও উজ্জ্বল হয়। তথ্যঃ বিডি খবর

দেশে প্রথমবারের মতো জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত

দেশে প্রথমবারের মতো জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে। ষাটোর্ধ্ব এই ব্যক্তির বাড়ি চট্টগ্রামে। আজ মঙ্গলবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ডেঙ্গু প্রতিরোধের প্রস্তুতি সম্পর্কে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক এ তথ্য জানান। সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক মাহমুদুর রহমান বলেন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে নিয়মিত পর্যবেক্ষণের ভিত্তিতে এ জিকা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত

তিনি আরও বলেন, আইইডিসিআর, ঢাকা মেডিকেল কলেজ, উত্তরা আধুনিক মেডিকেল কলেজ, খুলনা মেডিকেল কলেজ ও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আসা রোগীদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল ডেঙ্গু পরিস্থিতি পর্যালোচনা করার জন্য। সেই নমুনা বিশ্লেষণের সময় জিকা ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। জিকা ভাইরাস নিয়ে সন্দেহ হওয়ায় ওই ব্যক্তির শরীর থেকে সংগৃহীত নমুনা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কাছে পাঠানো হয় ১৩ মার্চ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জিকা ভাইরাস নিশ্চিত করার পর এ ব্যাপারে আজ ঘোষণা দেওয়া হলো। তথ্যঃ বিডি খবর

সিঁড়ি ভাঙার অভ্যাস স্মৃতিশক্তি বাড়ায়

সিঁড়ি ভাঙার অভ্যাস স্মৃতিশক্তি বাড়ায়

মস্তিষ্কের বুড়িয়ে যাওয়া রোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে সিঁড়ি ভাঙার অভ্যাস। প্রতিদিনের এই অভ্যাস মস্তিষ্ক সচল রাখতে সাহায্য করে।নিউরোবায়োলজি অফ এজিং জার্নালে এ বিষয়ে করা একটি গবেষণার প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। গবেষণাটি করেন কানাডার মন্ট্রিয়লে কনকর্ডিয়া ইউনিভার্সিটির গবেষক জেসন স্টেফনার ও তার দল।

তিনি জানাচ্ছেন, লিফটে যাতায়াতের অভ্যাস কমাতে এখন অফিসেই শুরু হয়েছে টেক দ্য স্টেয়ার ক্যাম্পেন। এতে দেখা গেছে যারা এ ক্যাম্পেনে আছেন তাদের মস্তিষ্কের সচলতা বেড়েছে।

গবেষক জেসন স্টেফনার আরও জানান, যে মানুষ জীবনে যত বেশি সিঁড়ি ভাঙেন তার মস্তিষ্কের বয়স তত কম থাকে। স্টেফনারের দল ১৯ থেকে ৭৯ বছর বয়সী ৩৩১ জনের উপর এই গবেষণা চালিয়ে এ তথ্য পান। এদের মস্তিষ্কের গ্রে ম্যাটারের পরিমাণ এবং বয়সের সঙ্গে সঙ্গে তা কমে আসা পর্যবেক্ষণে রাখেন স্টেফনার। এরপর তারা জীবনে কতগুলো সিঁড়ি ভেঙেছেন তার সঙ্গে মিলিয়ে দেখে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে আসেন গবেষক দল।  ফলাফলে দেখা যায়, যারা বেশি সিঁড়ি ভেঙেছেন তাদের মস্তিষ্ক অন্যান্যদের থেকে বহুগুণে সচল। তথ্যঃ বিডি খবর

সুন্দর ত্বক ও চুলের যত্নের পেঁপের যত গুন

মাখনের মত নরম লাল বা হলুদ পেঁপে সারা বছরই পাওয়া যায়। পেঁপেকে বলা যায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আর পুষ্টি গুণে ভরপুর এক ফল। আর ত্বকের জন্য বেশ উপকারী এই পেঁপে। যারা সুন্দর ত্বক পেতে চান তাদের জন্য পেঁপের চেয়ে ভালো আর কিছুই হতে পারেনা। আসুন জেনে নেই পেঁপে কীভাবে সুন্দর করে আমাদের ত্বককে।
 সুন্দর ত্বক ও চুলের যত্নের পেঁপের যত গুন

মুখের উজ্জ্বলতায়

পেঁপেতে আছে ভিটামিন ‘এ’ সঙ্গে পাপাইন এনজাইম। পেঁপে ত্বকের মৃত কোষ সরাতে সাহায্য করে আর ত্বককে নরম করে। ত্বককে হাইড্রেড করে। যদি উজ্জ্বল ত্বক চান, ব্যবহার করুন পেঁপে-মধু ফেসপ্যাক। তিন টেবিল চামচ মধু আর পেঁপে মিশিয়ে নিন। মুখে ঘাড়ে লাগান ২০ মিনিট রাখুন এবং পরে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ব্রণের চিকিৎসায়

ব্রণের সমস্যায় ভুগছেন? কাচা পেঁপে পেস্ট করে মুখে লাগান। আধা ঘণ্টা রাখুন। অবশ্যই ভালো ফল পাবেন।

পা ফাটা

যাদের পা ফাটা তারাও ব্যবহার করতে পারেন পেঁপে। পা নরম হবে এবং ফাটাও কমবে।

চুলের যত্নে

পেঁপের মধ্যে যে পুষ্টি রয়েছে তা চুলের জন্য বেশ কার্যকর। পেঁপে চুলকে নরম করে, চুলের ভাঙ্গা রোধ করে, পাশাপাশি চুলের শুকিয়ে যাওয়া বা চিকন হয়ে যাওয়াও রোধ করে।

খুশকি কমায়

পেঁপের তৈরি হেয়ার মাস্ক খুশকি নিয়ন্ত্রণ করে। কাচা পেঁপে আধা কাপ টক দই দিয়ে ভালো করে ব্লেন্ড করুন। এবার চুলে লাগান। ৩০ মিনিট পর ধুয়ে নিন।

ন্যাচরাল কন্ডিশনার

যেহেতু পেপে মিনারেল, ভিটামিন আর এনজাইমে পরিপূর্ণ তাই এটা চুলকে প্রাকৃতিকভাবেই কন্ডিশনিং করে। পেঁপে কলা আর দই, সঙ্গে নারকেল তেল ব্লেন্ড করে নিন। এবার এই মিশ্রন চুলে লাগান। চুলে শাওয়ার ক্যাপ বা টাওয়েল দিয়ে মুরিয়ে রাখুন এক ঘণ্টা। গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। তথ্যঃ বিডি খবর

জেনে নিন গ্রীষ্মে ‘ঠান্ডা’ থাকার উপায়

গরমকাল এসে গেছে৷ শুরু থেকেই মেনে চলুন হেলদি লাইফ স্টাইল৷ কী ভাবে? জেনে নিন…এই সময় সচেতন না হলে শরীর কাহিল হয়ে পড়ার আশঙ্কা প্রবল৷ তাই গ্রীষ্মের প্রচণ্ড দাবদাহ শুরু হওয়ার আগেই নিজের স্বাস্থ্য নিয়ে একটু সচেতন হোন৷ সেটা খুব একটা কঠিন নয়৷ দরকার জীবনযাপনেরসামান্য কিছু নিয়মের অদল-বদল৷

জেনে নিন গ্রীষ্মে ‘কুল’ থাকার উপায়

১) সারা বছরই পর্যাপ্ত পরিমাণ জল খাওয়ার প্রয়োজন৷ তবে গরম কালে আমাদের শরীরে জলের প্রয়োজনীয়তা আরও একটু বেশি হয়৷ তার কারণ এই সময় অতিরিক্ত ঘাম হয়৷ ফলে ডিহাইড্রেশন হয়৷ ডিহাইড্রেশন থেকে হিট স্ট্রোক পর্যন্ত হতে পারে৷ আর এই ডিহাইড্রেশন থেকে বাঁচতে আমাদের জল খাওয়ার পরিমাণটা এই সময় বাড়ানো দরকার৷ এই নিয়মটা এখন থেকে মানলে গরম কালে আর এই ডিহাড্রেশনের ভয় থাকবে না৷

২) প্রতিদিন খানিকটা সময় দিন শরীরচর্চার জন্য৷ নিয়মিত শরীরচর্চা করলে তা সামগ্রিক ভাবে আমাদের সুস্থ থাকতে সাহায্য করে৷ সকালের দিকে আউটডোর এক্সারসাইজ করতে পারেন৷ যে সময় আবহাওয়া অপেক্ষাকৃত ঠাণ্ডা থাকে সেইসময় এক্সারসাইজ করুন৷ দুপুরের দিকে জিমে যাওয়া এড়িয়ে যাওয়াই ভালো৷ সাঁতার কাটতে পারেন৷ আবার শরীর ঠাণ্ডা রাখার জন্য নানা ধরনের যোগ ব্যায়ামও আছে৷ সেগুলোও অভ্যাস করতে পারেন৷

৩) গরম কালে সান বার্ন, হিট স্ট্রোক, ইত্যাদির আশঙ্কা বেড়েই যায়৷ তাই বাইরে বেরোনোর সময় ছাতা মাস্ট৷ সঙ্গে সানগ্লাস রাখবেন৷ সানস্ক্রিনও লাগাতে ভুলবেন না৷ এবং অবশ্যই সঙ্গে জলের বোতল রাখবেন৷

৪) এই সময় ঠাণ্ডা পানীয় খাওয়ার একটা প্রবণতা বেড়ে যায়৷ তাতে কিন্ত্ত হিতে বিপরীত হতে পারে৷ বারবার সফ্ট ড্রিঙ্ক না খেয়ে কাঁচা আম পোড়ার সরবত বা দইয়ের ঘোল খেতে পারেন৷ গরম কালে শরীরকে ঠাণ্ডা রাখবে৷ লেবু-চিনির জলও খুবই উপকারী৷

৫) গরমকালে ঘামের ফলে অনেক সময় ফাঙ্গাল ইনফেকশন দেখা দিতে পারে৷ এর জন্য ত্বক সব সময় পরিষ্কার রাখুন৷ হাইজিনের উপর নজর দিন৷

৬) এই সময় থেকেই খাওয়া দাওয়ার দিকে নজর দিন৷ শীতকাল ভর ভালো মন্দ খাওয়া তো হয়েই গিয়েছে৷ তাই এবার একটু হালকা খাওয়া দাওয়া করুন৷ ফ্রায়েড ফুড, বাইরের খাবার ইত্যাদি এড়িয়ে যান৷

৭) অতিরিক্ত চা বা কফি খাওয়ার অভ্যাস থাকলে এখন থেকেই সেই অভ্যাসে রাশ টানুন৷ বদলে গ্রিন-টি খাওয়ার অভ্যাস করতে পারেন৷ ধূমপান বা অ্যালকোহলও যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলা উচিত৷

৮) পোশাকের উপরে নজর দিন৷ টাইট ফিটিং সিনথেটিক জামা কাপড়ের বদলে সুতির ঢিলেঢালা পোশাক পরুন৷ রাতের ঘুম যাতে পর্যাপ্ত হয়, সেই ব্যাপারে খেয়াল রাখুন৷ তথ্যঃ বিডি খবর

৫ মিনিটে দূর করুন অ্যাসিডিটির সমস্যা

অ্যাসিডিটি এমন একটি সমস্যা যা একটু অসাবধানতায় যেকোনো সময় যেকোনো স্থানেই শুরু হয়ে যেতে পারে। অ্যাসিডিটির সমস্যায় প্রচণ্ড বুক ও পেট জ্বালাপোড়া করতে থাকে যা অনেক বেশি যন্ত্রণাদায়ক।

asidity

বাজারে আজকাল এই অ্যাসিডিটির সমস্যা দূর করতে অনেক ধরণের ঔষধ ও কেমিক্যাল জাতীয় ইনস্ট্যান্ট পানীয় পাওয়া যায়। কিন্তু এইসকল দ্রব্যের রয়েছে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া। তাই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে যতোটা সম্ভব প্রাকৃতিক উপায় ব্যবহার করাই ভালো। তাহলে আজকে জেনে নিন প্রাকৃতিক উপায়ে মাত্র ৫ মিনিটে কিভাবে দূর করবেন অ্যাসিডিটির যন্ত্রণাদায়ক সমস্যা।
acdty

তুলসি চা

তুলসি পাতার ব্যবহার অ্যাসিডিটি নিরাময়ে অনেক জনপ্রিয়। যখনই অ্যাসিডিটির সমস্যা দেখা দেবে তখন চট করে বানিয়ে নিন তুলসি চা। ২ কাপ পানিতে ৫/৬ টি তুলসি পাতা ফুটতে দিন। পানি ফুটে ১ কাপ পরিমাণ হয়ে এলে তা নামিয়ে গরম গরম পান করুন যন্ত্রণার উপশম হবে। চাইলে তুলসি পাতা চিবিয়েও খেয়ে নিতে পারেন, এতেও ফল পাবেন।

201504181333561

রসুন

কাঁচা রসুন খেলে পাকস্থলীতে হাইড্রোক্লোরিক এসিডের মাত্রা বেড়ে যায়। যার ফলে অ্যাসিডিটির সমস্যা খুব দ্রুত এবং সহজে দূর হয়ে যায়।

37582-kolathumb

কলা

কলার মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম যা পাকস্থলীর গা থেকে মিউকাস নিঃসরণ করতে সহায়তা করে। এই মিউকাস অ্যাসিডিটির সমস্যা তাৎক্ষণিকভাবে দূর করতে বেশ কার্যকরী।

acdty1ঠাণ্ডা দুধ

অ্যাসিডিটির সমস্যা তাৎক্ষণিকভাবে দূর করতে ঠাণ্ডা দুধের জুড়ি নেই। দুধের ক্যালসিয়াম পাকস্থলীতে পৌঁছে বাড়তি অ্যাসিড যা অ্যাসিডিটি তৈরি করে তা শোষণ করে নেয়। এবং বুক ও পেটের যন্ত্রণাদায়ক জ্বালা থেকে মুক্তি দেয়।

pudina-pata

পুদিনা

পুদিনা পাতা পাকস্থলীর বাড়তি অ্যাসিডের সমস্যা থেকে খুব দ্রুত মুক্তি দিতে পারে এবং পরিপাকে সহায়তা করে অ্যাসিডিটি থেকে মুক্তি দেয়। তুলসি পাতার মতোই পুদিনা পাতার চা তৈরি করে কিংবা পুদিনা পাতা চিবিয়ে খেলেও অ্যাসিডিটির সমস্যা থেকে দ্রুত রেহাই পাওয়া যায়।

1402575701

আদা

হজমে সমস্যা এবং অ্যাসিডিটির সমস্যা দূর করতে আদা অনেক প্রাচীনআমল থেকেই ব্যবহার হয়ে আসছে। আদা পাকস্থলীর গায়ে একধরণের প্রতিরক্ষা পর্দা তৈরি করে যার ফলে বাড়তি অ্যাসিডের কারণে অ্যাসিডিটির সমস্যা দ্রুত দূর হয়ে যায়।

সূত্রঃ বিনোদন নিউজ